ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২০

শিরোনামঃ

কিংবদন্তী অধ্যাপক এ এফ মহিউদ্দিন খান এর বিদায় সংবর্ধনা

কিংবদন্তী অধ্যাপক এ এফ মহিউদ্দিন খান এর বিদায় সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক কান গলা বিভাগের অধ্যাপক এবং বিভাগীয় প্রধান ডাঃ এ এফ মহিউদ্দিন খান সরকারি চাকুরী থেকে সম্প্রতী অবসরে গিয়েছেন। সুদীর্ঘ ৩৪ বছরের কর্ম জীবন তার এই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। উল্লেখ্য ডাঃ এ এফ মহিউদ্দিন খান ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করনে। তারপর মেডিকেল শাস্ত্রের সর্বোচ্চ ডিগ্রী এম এস (অটোল্যারিংগোলজী) অর্জন করেন। এছাড়াও বিভিন্ন দেশ থেকে উচ্চতর প্রশিক্ষণ সহ ফেলোশিপ অর্জন করেন।
সরকারি চাকরীর প্রায় শুরু থেকেই তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজে আছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক কান গলা বিভাগে তিনি ধারাবাহিক ভাবে সহকারী রেজিষ্ট্রার, রেজিষ্ট্রার, সহকারী অধ্যাপক,সহোযোগী অধ্যাপক,অধ্যাপক এবং বিভাগীয় প্রধান হিসেবে কাজ করেছেন।
জনপ্রিয় এই অধ্যাপকের শেষ কর্ম দিবসে বিদায়ী সংবর্ধনার আয়োজন করে তারই অনুরাগী প্রিয় ছাত্র ছাত্রী, শিক্ষক,সহকর্মী, অত্র হাসপাতালের কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ।
আজ সকাল ৯ ঘটিকায় শুরু হওয়া এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত করা হয়। এর পর ধাপে ধাপে স্মৃতি চারণ করেন তার প্রিয় ছাত্র ছাত্রী,সহ কর্মী, কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ। এ সময় তৈরী হয় এক মায়াময় পরিবেশ। অনেকেই বক্তৃতা মঞ্চে এসে কথা শুরু করতেই অশ্রু জলে প্লাবিত হয়েছেন। স্মৃতিকাতর এই অনুষ্ঠানে আরো স্মৃতি চারণ করেন নাক কান গলা বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আবু ইউসুফ ফকির, অধ্যাপক ডাঃ শেখ নুরুল ফাত্তাহ রুমি,সহোযোগী অধ্যাপক ডাঃ দেবেশ চন্দ্র তালুকদার, সহোযোগী অধ্যাপক ডাঃ হোসনে আরা,সহোযোগী অধ্যাপক ডাঃ দীপঙ্কর লোধ সহ অনেকই।
অনুষ্ঠানে অধ্যাপক এ এফ মহিউদ্দিন খানের কর্ম ময় জীবন নিয়ে বিশেষ ডকুমেন্টারি প্রেজেন্ট করেন ডাঃ রক্তিম।
স্যার কে নিয়ে স্বরচিত কবিতা আবৃতি করেন ডাঃ বাসুদেব কুমার সাহা। মানপত্র পাঠ করেন ডাঃ দেবনাথ তালুকদার রনি।
অনুষ্ঠানে অধ্যাপক মহিউদ্দিন খানের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন তার শ্বশুর,স্ত্রী,দুই কণ্যা,এক ছেলে জামাতা এবং দুই নাতনী।
অনুষ্ঠানের শেষ অংশে অধ্যাপক মহিউদ্দিনের স্মৃতিচারণ বক্তব্যে তৈরী হয় এক বেদনা বিধুর পরিবেশ। অশ্রু জলে সিক্ত হন অধ্যাপক।
তার আবেগী কথার পরতে পরতে দর্শক গ্যালারীতে ছিল শুধু কান্নার রোল।
বিদায়ী ভাষণে তিনি জানালেন তার স্বপ্নের কথা। একটি বিশ্ব মানের ক্যান্সার হাসাপাতাল প্রতিষ্ঠা করে আগামী দিনগুলোতেও গরীব অসহায় রোগিদের পাশে থাকতে চান তিনি।
সবশেষে ফুল, বিভিন্ন উপহার সামগ্রী ও সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করে স্যারকে সম্মানিত করা হয়।
অনুষ্ঠান টি সঞ্চালনা করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের নাক কান গলা বিভাগের ডাঃ মোস্তফা কামাল আরেফিন।